Monday, December 17, 2018

ঘরে বসে লাখপতি হোন।

অনলাইন ভিত্তিক অর্থ উপার্জনের ১০০% নিশ্চয়তা দিয়ে ডি.আই.টি-তে বিভিন্ন কোর্স-এ ভর্তি চলিতেছে..!

মোবাইলঃ-01763-023348
sonardesh24.com

আমেরিকার ‘মা’ এর চেয়ে শক্তিশালী রাশিয়ার ‘বাবা’

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃসোনারদেশ২৪:

sonardesh24.comমার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মার্কিন প্রচণ্ড শক্তিশালী মোয়াব বা ‘সব বোমার জননী’র থেকে চারগুণ বেশি শক্তিশালী রাশিয়ার ‘ফোয়াব’ বা ‘সব বোমার পিতা’।গত শুক্রবার পরীক্ষামূলকভাবে প্রথম পাকিস্তানের সীমান্তবর্তী আফগান প্রদেশ নাঙ্গাহারে এই মোয়াব বোমা নিক্ষেপ করা হয়। এতে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের অন্তত ৯২ জন নিহত  নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে আমেরিকা। লম্বায় ৩০ ফুটেরও বেশি বোমাটি মার্কিন বিমান বাহিনীর স্পেশাল অপারেশন্স কমান্ড পরিচালিত এমসি-১৩০ বিমান থেকে ফেলা হয়।

জিবিইউ-৪৩ ম্যাসিভ অর্ডন্যান্স এয়ার ব্লাস্ট সংক্ষেপে মাদার অব অল বোম্বস-মোয়াব। ২০০৩ সালে ইরাক যুদ্ধের সময় জিপিএস পরিচালিত এই বোমা তৈরি করেছিল আমেরিকা। তবে এই প্রথম ব্যবহার করল তারা। মোয়াবের মধ্যেই জিপিএস দিয়ে আগে থেকেই বোমাটির নিশানা ঠিক করে দেয়া যায়। বোমাটি ফেলার জন্য প্যারাসুট ব্যবহার করা হয়। এর ফলে ধীরে ধীরে হাওয়ার চাপ নিয়ে বোমাটি নিশানায় পৌঁছায়। মাটিতে পড়ার ঠিক আগেই এই বোমাটি ফাটে। গুহা, সুড়ঙ্গ এবং ভূগর্ভস্থ ডেরা ধ্বংস করতে এ ধরনের বোমা ব্যবহার করা হয়ে থাকে। পরমাণু বোমার পরেই এই বোমা সবচেয়ে শক্তিশালী। বোমাটি যেখানে পড়ে, তার ১ মাইলের মধ্যে সবকিছু ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়। এর ওজন ১০ হাজার কেজির মতো। ৮,১৬৪ কেজির মতো বিস্ফোরক থাকে এর মধ্যে। টিএনটি বিস্ফোরকের তুলনায় ১১ গুণ শক্তিশালী এই বোমা। এর ধ্বংসাত্মক প্রভাব দেড় মাইল জুড়ে পড়ে। এই বোমা পরীক্ষণের পর মাশরুমের মতো দেখতে মেঘের সৃষ্টি হয়েছিল যা ২০ মাইল দূর থেকে দেখা গিয়েছিল।

এর বিস্ফোরণে ১০০০ গজের মধ্যে সব কিছু নিশ্চিহ্ন হয়ে যায়।  ১.৭ মাইলে বোমার শকওয়েভে মানুষের মৃত্যু হয়, সম্পত্তির প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি হয়। ২ মাইলের মধ্যে বধির হয়ে যায় মানুষ, পশু।  ৫ মাইলের মধ্যে প্রচণ্ড কম্পন অনুভূত হয়।  ৩০ মাইলের মধ্যে বিস্ফোরণের ফলে ১০ হাজার ফুট উচ্চতায় যে মাশরুমের মতো মেঘ সৃষ্টি হয় তা দেখতে পাওয়া যায়। এক একটি বোমা তৈরি করতে খরচ হয় ১ কোটি ৬০ লক্ষ মার্কিন ডলার। আমেরিকার কাছে এখনও পর্যন্ত এ রকম ২০টি অস্ত্র রয়েছে।

মোয়াব তৈরির পর মনে করা হয়েছিল, এটাই বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী নন-নিউক্লিয়ার বোমা। কিন্তু থার্মোব্যারিক বোমা ফোয়াব পরীক্ষার পর রাশিয়া দাবি করে মোয়াব-এর থেকে এটা চার গুণ বেশি শক্তিশালী। যেটি এখনো কোনো যুদ্ধে ব্যবহার করা হয়নি। তবে সাড়ে ১৫ হাজার পাউন্ডের এ বোমার ৪৪ টন টিএনটি’র সমতুল্য বিস্ফোরণ ক্ষমতা রয়েছে। বিস্ফোরণ  ক্ষমতার দিক থেকে ফোয়াব ‘মোয়াবের’ চেয়ে চারগুণ শক্তিশালী বলে জানানো হয়েছে। মোয়াবের বিস্ফোরণ ক্ষমতা ১১ টন টিএনটির সমান।

২০০৭ সালে বোমাটির পরীক্ষামূলক বিস্ফোরণ ঘটিয়েছিল রাশিয়া। তাতে মোয়াবের চেয়ে দ্বিগুণ তাপমাত্রার সৃষ্টি হয়েছিল। রাশিয়ার তথ্যের ভিত্তিতে একে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী অপারমাণবিক বোমা হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে।

Check Also

sonardesh24.com

‘শতাধিক নারীকে যৌন হয়রানি আধ্যাত্মিক গুরুর’

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪: ব্রাজিলের এক ‘আধ্যাত্মিক গুরুর’ বিরুদ্ধে তিন শতাধিক নারীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। ...

সম্পাদকঃ জিয়া্উল হক, নির্বাহী সম্পাদকঃ নওশাদ আহমেদঠিকানাঃ কমিউনিটি হাসপাতাল (৫ম তলা) মুজিব সড়ক, সিরাজগঞ্জ।
ফোনঃ ০১৬৮৩-৫৭৭৯৪৩, ০১৭১৬-০৭৬৪৪৪ ইমেইলঃ sonardesh24.corr@gmail.com, sonardesh24@yahoo.com