Wednesday, October 17, 2018

ঘরে বসে লাখপতি হোন।

অনলাইন ভিত্তিক অর্থ উপার্জনের ১০০% নিশ্চয়তা দিয়ে ডি.আই.টি-তে বিভিন্ন কোর্স-এ ভর্তি চলিতেছে..!

মোবাইলঃ-01763-023348
sonardesh24.com

এবার বাজেটে সর্বোচ্চ বরাদ্দ বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত

সোনারদেশ২৪ রিপোর্টঃ

sonardesh24.comআগামী অর্থবছরের (২০১৭-১৮) বাজেট হবে নির্বাচনি বাজেট। বর্তমান সরকারের শেষ পূর্ণাঙ্গ বাজেট হবে এটি। সরকার অবশ্য এর পরের অর্থবছরেরও (২০১৮-১৯) বাজেট দেবে, তবে তা হবে ৬ মাসের জন্য অন্তর্বর্তীকালীন।

এবারের বাজেটে সর্বোচ্চ বরাদ্দ পাবে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত, সর্বাধিক গুরুত্ব পাবে মানবসম্পদ উন্নয়ন খাত।

বাজেটে অতীতের রেকর্ড ভেঙে শিক্ষাকে বাদ রেখে সবচেয়ে বেশি বরাদ্দ দেওয়া হবে বিদ্যুৎ ও জ্বলানি খাতে। চলতি অর্থবছরের জন্য বিদ্যুৎ খাতে ১৩ হাজার ৪০ কোটি ৯ লাখ টাকা বরাদ্দ রয়েছে। এর মধ্যে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে (এডিপি) মোট ৬৭টি প্রকল্পের আওতায় ১২ হাজার ৫৪০ কোটি ৯ লাখ এবং অনুন্নয়ন খাতে ২২ কোটি ৭১ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

২০১৫-১৬ অর্থবছরের তুলনায় ২০১৬-১৭ অর্থবছর বিদ্যুৎখাতে প্রায় সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা কমানো হলেও এ বছর এ সীমানা ছাড়িয়ে বাড়তি বরাদ্দ দেওয়া হবে, যা নিশ্চিত। অর্থমন্ত্রী নিজে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে কত বাড়বে, তা তিনি এখনও চূড়ান্ত করেননি।

জানা গেছে, বিশেষ সুবিধা, বরাদ্দ, ভর্তুকি, প্রকল্প রাখা হতে পারে নতুন বাজেটেই। আর এর সবই হতে পারে আগামী নির্বাচনকে মাথায় রেখে। নদীভাঙা ও গৃহহীন পরিবারকে সহায়তা, বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা নারী, সহায় সম্বলহীন ব্যক্তি, দুস্থ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারসহ বঞ্চিত জনগোষ্ঠীকে বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে সুবিধা দেওয়ার ব্যবস্থা থাকবে আসন্ন বাজেটে।

এবারে বাজেটে ভর্তুকির প্রাক্কলন করা হয়েছে ২৭ হাজার ৫০০ কোটি টাকা। চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছর ভর্তুকিবাবদ বরাদ্দ ছিল ২৩ হাজার ৮৩০ কোটি টাকা। এ বছর কৃষি ও খাদ্য খাতে ভর্তুকি বাড়লেও আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কম থাকায় জ্বালানি তেলের ক্ষেত্রে কোনও ভর্তুকি দেওয়া হচ্ছে না।

নতুন ২০১৭-১৮ অর্থবছর শেষ হবে ২০১৮ সালের ৩০ জুন। আর ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে জাতীয় সংসদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।  নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে যেন ব্যবসায়ীরা ক্ষুব্ধ না হন, সেদিকে নজর রেখে সংশোধন করে কমানো হবে ভ্যাটের হারও।

এ প্রসঙ্গে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বাংলা  বলেছেন, ‘অবশ্যই নির্বাচনের বিষয়টি দেখতে হবে। রাজস্ব আদায় না হলে জনগণের উন্নয়ন হবে কী করে? জনগণকে সুবিধা দিতে রাজস্ব আয়ের কোনও বিকল্প নেই। তবে রাজস্ব আদায় করতে গিয়ে যেন জনগণ ভোগান্তিতে না পড়ে, সেদিকেও নজর রাখতে হবে।’

আগামী অর্থ বছরের বাজেটের সম্ভাব্য আকার হরে পারে ৪ লাখ কোটি টাকার ওপরে। চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেটের আকার হচ্ছে ৩ লাখ ৪০ হাজার ৬০৫ কোটি টাকা। শতকরা হিসাবে বাজেট বৃদ্ধির হার ১৬ দশমিক ৫১ শতাংশের বেশি। বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) নির্ধারণ করা হয়েছে ১ লাখ ৫৩ হাজার কোটি টাকার। ৭ম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা অনুযায়ী ২০১৭-১৮ নতুন অর্থবছরের জন্য মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) প্রবৃদ্ধির হার নির্ধারণ করা হয়েছে ৭ দশমিক ৪ শতাংশ।

এবারের বাজেটে মোট রাজস্ব আয়ের সম্ভাব্য লক্ষ্যমাত্রা ধরা হচ্ছে ২ লাখ ৯১ হাজার কোটি টাকা। যার মধ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এনবিআর থেকে আসবে ২ লাখ ৪৮ হাজার কোটি টাকা। নন-এনবিআর থেকে সম্ভাব্য আয় ধরা হতে পারে ১১ হাজার কোটি টাকা। বৈদেশিক ঋণবাবদ সহায়তা নেওয়ার সম্ভাব্য লক্ষ্যমাত্রা হতে পারে ৫৫ হাজার ৮০০ কোটি টাকা। অনুদান নেওয়া হতে পারে ৫ হাজার ৬০০ কোটি টাকা। কর-বহির্ভূত খাত থেকে আসবে ৩২ হাজার কোটি টাকা। ঘাটতি থাকছে ১ লাখ ১০ হাজার কোটি টাকা। ঘাটতি পূরণ করা হবে অভ্যন্তরীণ উৎস ও বিদেশি সহায়তা থেকে।

আগামী অর্থবছরে মোট ব্যয় হবে ৪ লাখ কোটি টাকারও বেশি। এর মধ্যে অনুন্নয়ন রাজস্ব ব্যয় ২ লাখ ৪৬ হাজার ৯৪০ কোটি টাকা। সরকারি চাকরিজীবীদের বেতনভাতা খাতে ব্যয় হবে প্রায় সাড়ে ৫৭ হাজার কোটি টাকা। বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়নে ভর্তুকি খাতে ব্যয় হবে ২৭ হাজার ৫শ কোটি টাকা। বাকি ব্যয় ধরা হয়েছে দেশি-বিদেশি ঋণের সুদ, পেনশন গ্র্যাচুইটি, প্রণোদনাসহ আনুষঙ্গিক খাতে।

পাশাপাশি উন্নয়ন ব্যয় ধরা হয়েছে ১ লাখ ৬৪ হাজার ৮৪ কোটি টাকা।  এর মধ্যে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) আকার ১ লাখ ৫৩ হাজার ৩৩১ কোটি টাকা এবং অন্যান্য ব্যয় ১০ হাজার ৭৫৩ কোটি টাকা। নির্বাচনি চমক থাকছে মেগা প্রকল্প। সরকারের ৮ মেগা প্রকল্পেই থাকছে ৩৩ হাজার ৭৩১ কোটি টাকা।

সব কিছু ঠিক থাকলে ১ জুন জাতীয় সংসদে উপস্থাপিত হবে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট। এর আগে ৩০ মে চলমান ১০ম জাতীয় সংসদের ১৬তম অধিবেশন (যা বাজেট অধিবেশন নামেই পরিচিতি)  ডেকেছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। এটি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের একটানা ৯ম বাজেট। এর আগে তিনি এরশাদ সরকারের অর্থমন্ত্রী হিসেবে আরও ২টি বাজেট পেশ করেছিলেন।
সূত্র:বাংলাট্রিবিউন

Check Also

sonardesh24.com

নওগাঁয় দুটি ব্রীজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ সোনারদেশ২৪: নওগাঁর মহাদেবপুরে স্বাধীনতার দীর্ঘ ৪৭ বছর পর অবশেষে আত্রাই নদীর শিবগঞ্জঘাট ও ...

সম্পাদকঃ জিয়া্উল হক, নির্বাহী সম্পাদকঃ নওশাদ আহমেদঠিকানাঃ কমিউনিটি হাসপাতাল (৫ম তলা) মুজিব সড়ক, সিরাজগঞ্জ।
ফোনঃ ০১৬৮৩-৫৭৭৯৪৩, ০১৭১৬-০৭৬৪৪৪ ইমেইলঃ sonardesh24.corr@gmail.com, sonardesh24@yahoo.com