Wednesday, October 17, 2018

ঘরে বসে লাখপতি হোন।

অনলাইন ভিত্তিক অর্থ উপার্জনের ১০০% নিশ্চয়তা দিয়ে ডি.আই.টি-তে বিভিন্ন কোর্স-এ ভর্তি চলিতেছে..!

মোবাইলঃ-01763-023348
sonardesh24.com

কাতারে হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে সৌদি আরব!

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃসোনারদেশ২৪:

sonardesh24.comওয়াশিংটনভিত্তিক গবেষণা সংস্থা ইনস্টিটিউট ফর গাল্ফ অ্যাফেয়ার্সের বরাত দিয়ে রাশিয়ার বার্তা সংস্থা স্পুতনিক বলছে, কাতারে সামরিক আগ্রাসন চালানোর পূর্ণাঙ্গ প্রস্তুতি নিয়ে সৌদি আরব দেশটির সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে।

ইনস্টিটিউট ফর গাল্ফ অ্যাফেয়ার্সের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক আলী আল-আহমেদ স্পুতনিককে বলেছেন, কাতারে সৌদি আগ্রাসন খুবই দ্রুত হবে যা কেউ কল্পনাও করতে পারছে না। কাতারের সমস্ত সম্পদ দখল করা হতে পারে সম্ভাব্য এ আগ্রাসনের একটি বড় কারণ।

তিনি বলেন, ‘কাতারে সৌদি আগ্রাসনের বিষয়টি আমি ধারণা করছি। কাতার সীমান্তের কাছে সৌদি আরবের সেনাদের চলাচলের খবর পাচ্ছি এবং সৌদি সেনারা প্রস্তুতি নিচ্ছে।’

আলী আহমেদ বলেন, ‘মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনের সঙ্গে সৌদি রাজপরিবারের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। তারা দু’জনই কাতারে সৌদি আগ্রাসনকে সমর্থন করবেন। আমার কাছে যথেষ্ট বিশ্বাসযোগ্য খবর রয়েছে যে, এরইমধ্যে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সৌদি আরবকে বলে দিয়েছেন- কাতারে সামরিক আগ্রাসনের বিষয়ে তার কোনো আপত্তি নেই।’

আলী আহমেদ আরো বলেন, ‘সৌদি আরব যদি কাতারে আগ্রাসন চালায় তাহলে তাতে জোরালো সমর্থন দেবে মিশর, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন। এর মধ্যে বাহরাইনে রয়েছে মার্কিন পঞ্চম নৌবহরের ঘাঁটি।’

আমেরিকা-ভিত্তিক এই গবেষণা সংস্থার প্রধান বলছেন, সৌদি সরকার কাতারের ওপর খুবই ক্ষিপ্ত। সৌদি সরকার কখনই ইয়েমেনের হুথি যোদ্ধাদেরকে স্বাধীন হতে দেবে না। এছাড়া বাহরাইন কাতারকে ঘৃণা করে। সৌদি আরবের নেতারা কাতারকে করদরাজ্যে পরিণত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং ইয়েমেনের পলাতক সরকারের মতো কাতারকেও দাসত্ব গ্রহণে বাধ্য করাতে চান।

সৌদি আরবের দুটি লক্ষ্য রয়েছে- প্রথমত, কাতারের সঙ্গে সৌদি আরব দাসসুলভ সম্পর্ক করতে চায় যা একেবারেই দাস-শ্রমিকের মতো। দ্বিতীয়ত, কাতারের বিপুল পরিমাণ রিজার্ভ তহবিলের ওপর দৃষ্টি পড়েছে সৌদি আরবের; তারা এ সম্পদের দখল নিতে চায়। গবেষক আলী আল-আহমদ বলেন, সৌদি আরব খুবই অঙ্গীকারাবদ্ধ যে তারা কাতারে একেবারে আজ্ঞাবহ শাসক বসাবে।

গবেষক আলী আহমেদ বলেন, ‘প্রায় এক শতাব্দী আগে বাদশাহ আবদুল আজিজ সৌদি আরবকে যে আদর্শের ওপর দাঁড় করেয়েছিলেন তা থেকে সৌদি নেতৃত্ব আবার ডাকাতি ও দস্যুতার দিকে ফিরে যাচ্ছে।’ তিনি বলেন, ‘সৌদি আরব ছিল লুটতরাজ ও ডাকাতি নীতির ওপর প্রতিষ্ঠিত একটি রাষ্ট্র এবং আলে সৌদের এটাই ছিল আসল রূপ। তারা ছিল মরুচারি ও লুটপাটকারী; তারা ছিল বেদুইন দস্যু। এখন তাদের আবার অনেক অর্থের প্রয়োজন।’

আলী আহমেদ বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সৌদি শাসকদেরকে পরিস্কার করে দিয়েছেন যে, তিনি আশা করেন সৌদি আরব সরাসরি অথবা পরোক্ষভাবে আমেরিকার প্রতিরক্ষাখাতে বিপুল অংকের অর্থ দেবে যা রিয়াদের ওপর চাপ বাড়িয়ে তুলেছে।’

আমেরিকার এ গবেষক বলেন, ‘এখন সৌদি আরবের পাশ ফিরতেই অর্থের প্রয়োজন। এর মধ্যে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নতুন করে আর্থিক দাবি তুলেছেন। ফলে তাদের অর্থ শেষ হয়ে যাবে। এসব কারণে তারা অর্থের নতুন প্রবাহ বের করতে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। যে কারণে কাতার দখলের পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে।’

Check Also

sonardesh24.com

নওগাঁয় দুটি ব্রীজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ সোনারদেশ২৪: নওগাঁর মহাদেবপুরে স্বাধীনতার দীর্ঘ ৪৭ বছর পর অবশেষে আত্রাই নদীর শিবগঞ্জঘাট ও ...

সম্পাদকঃ জিয়া্উল হক, নির্বাহী সম্পাদকঃ নওশাদ আহমেদঠিকানাঃ কমিউনিটি হাসপাতাল (৫ম তলা) মুজিব সড়ক, সিরাজগঞ্জ।
ফোনঃ ০১৬৮৩-৫৭৭৯৪৩, ০১৭১৬-০৭৬৪৪৪ ইমেইলঃ sonardesh24.corr@gmail.com, sonardesh24@yahoo.com