Sunday, March 24, 2019

ঘরে বসে লাখপতি হোন।

অনলাইন ভিত্তিক অর্থ উপার্জনের ১০০% নিশ্চয়তা দিয়ে ডি.আই.টি-তে বিভিন্ন কোর্স-এ ভর্তি চলিতেছে..!

মোবাইলঃ-01763-023348

কারাগার থেকে নেতাকর্মীদের খালেদা জিয়ার বার্তা

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

sonardesh24.comবিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারাগার থেকে সাধারণ ভোটার, ধানের শীষের সমর্থক ও নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে আওয়ামী দুঃশাসন বিরোধী বার্তা দিয়েছেন জানিয়ে দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘খালেদা জিয়া নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন আগামীকাল আপনাদের সুযোগ আসবে স্বৈরশাসকদের হাত থেকে মুক্তিলাভের। দেশকে মুক্ত করার। সকল হুমকি-ধমকি ও ভয়ভীতি উপেক্ষা করে দলে দলে ভোটকেন্দ্রে যাবেন। আপনাদের এক একটি ভোট নিশ্চিত করতে পারে জনগণের মুক্তি ও গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ। ফলাফল না নিয়ে আপনারা ভোটকেন্দ্র ত্যাগ করবেন না। আপনারা ভোটকেন্দ্র পাহারা দেয়ার মাধ্যমে জনগণের ভোটাধিকার রক্ষা করবেন।’

তিনি বলেন, ‘আজ বিকেল থেকেই পালাক্রমে ভোটকেন্দ্র পাহারা দিবেন। ফজরের নামাজ পড়েই ভোটের লাইনে দাঁড়ানোর জন্য আপনাদেরকে অনুরোধ করছি। ভোট শুরুর আগে ব্যালট বাক্স পরীক্ষা করবেন। ভোট দিয়ে কেন্দ্রের আশপাশে থাকবেন। আপনারা শুধু সাধারণ ভোটারই নন, ভোটারদের অতন্দ্র প্রহরী। ভোট গ্রহণ শেষে ভোট গণনা করে কে কত ভোট পেল তা নিশ্চিত না হয়ে সাদা কাগজে সই করবেন না। কোনো অবস্থাতেই প্রিজাইডিং অফিসারের সই ছাড়া সই করবেন না। ফলাফল নিয়ে প্রিজাইডিং অফিসারের সাথে রিটার্নিং অফিসার বা সহকারী রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে যাবেন।’

শনিবার (২৯ ডিসেম্বর) নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, ‘রাত পোহালেই নির্বাচন। অঙ্গীকার, প্রতিশ্রুতি বরখেলাপ করে জনগণের সঙ্গে প্রতিমূহুর্তে বিশ্বাস ঘাতকতা করে ক্ষমতাসীনরা জবরদস্তিমূলকভাবে ক্ষমতা দখল করে আছে। আর এজন্য তাদের সামনের বাধাগুলো সরিয়ে দিতে দ্বিধা করেনি। প্রথমে তারা সবচেয়ে বড় বাধা মনে করেছে ‘গণতন্ত্রের মা’ বেগম খালেদা জিয়াকে। তাঁকে অন্যায়ভাবে বন্দী করা হয়েছে। বন্দী করে এখন নানাভাবে জুলুম করা হচ্ছে। আমরা তখনই বলেছিলাম-নির্দোষ বেগম জিয়াকে কারান্তরীণ করা ছিল একতরফা নির্বাচনের পূর্বাভাস। বেগম জিয়ার বিপুল জনপ্রিয়তাকেই ভয় পেয়েছে আওয়ামী শাসকগোষ্ঠী। সেই জন্যই নির্বাচনী মাঠে মোকাবেলা করার সাহস না পেয়ে তাঁকে বন্দী করা হয়েছে। বন্দী করার পর তিনি জনগণের কাছে ‘গণতন্ত্রের মা’ হিসেবে সমাদৃত হচ্ছেন। আর এতেই সরকার আরও হিংস্র হয়ে উঠে বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর চালাচ্ছে ভয়ংকর নিষ্ঠুরতা।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘২০০৯ সালে ক্ষমতাসীন হওয়ার পর থেকেই বিএনপি’র বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা, হামলা ও গ্রেফতারের হিড়িকের ধারাবাহিকতায় গত ১লা সেপ্টেম্বর থেকে এর মাত্রা বৃদ্ধি করা হয়েছে চরম মাত্রায়। তফশীল ঘোষণার পর মামলা-হামলা-গ্রেফতারের স্পীড লিমিট নাই। যেন এই নির্বাচনের চূড়ান্তক্ষণে সারা বাংলাদেশের জনগণের মৌলিক অধিকার ও স্বাধীনতাকে পরাধীনতার শৃঙ্খলে বন্দী করেছে অবৈধ শাসকগোষ্ঠী।’

তিনি আরও বলেন, ‘২০০৯ সালের পর থেকে শুধু বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গুম, খুন ও বিচার বহির্ভূত হত্যার আহাজারী নয়, শুধুই ইলিয়াস আলী, চৌধুরী আলম, সাইফুল ইসলাম হিরু, হুমায়ুন কবির পারভেজ, সুমন, জাকিরদের সন্তান-ভাইবোন-বাপ মায়ের গুমরে ওঠা কান্নাই নয়-এই অবৈধ শাসকগোষ্ঠী গোটা দেশটাকেই অনাচার-অবিচার-লুন্ঠনের অভয়ারণ্য করে তুলেছে। সাশ্রয়ী জ্বালানীর ব্যবস্থা না করে চড়া দামে বিদ্যূৎ দিয়ে সরকার আত্মীয়স্বজনদেরকে, বিডিআর হত্যাকাণ্ডে সহকর্মীদের অবিরল অশ্রুধারায় কফিন কাঁধে নিয়ে চলেছে সেনা কর্মকর্তারা। ফাঁস হওয়া প্রশ্নপত্রে মেধাবীরা চাকুরী পান না, পান দলীয় লোকরা। শেয়ার বাজার গিলে ফেলে দেশের বিক্ষত-বিকৃত অর্থনীতি। জমার চেয়ে খরচ বেশী। দমন-পীড়ণের ভয়ে সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ প্রকাশিত হয় না, তবে গুঞ্জরিত হয়।’

তিনি বলেন, ‘সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনীর খুনী কে ? এর উত্তর দিতে পারেনি সরকার। পোশাক কারখানায় শুধুই সারি সারি লাশ। হলমার্ক, ডেসটিনি, সরকারী ব্যাংক হরিলুট, পদ্মা সেতুসহ দুর্নীতি কেলেঙ্কারীতে ভরা আওয়ামী আমল। সুরঞ্জিতের কালো বিড়াল কাহিনী সবার মুখে মুখে। আওয়ামী নৃশংসতার মঞ্চে রক্তাক্ত কিশোর শ্রমিক বিশ্বজিৎ, নাটোর উপজেলা চেয়ারম্যান নুর হোসেন বাবু, ঢাকার ছাত্রদল নেতা জনি, চাঁদপুরে ছাত্রদলের লিমন, রতন, বিএনপি নেতা আবুল ছৈয়ালসহ হাজার হাজার বিরোধী দলীয় লোকজনদের লাশ। এদের আমলে সবচেয়ে আলোচিত অপরাধ ছিল নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের ঘটনা। ২০১৪ সালের ২৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ শহরের কাছ থেকে পৌর কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম, আইনজীবি চন্দন সরকারসহ ৭ জনকে অপহরণ করে র‌্যাব-১১ এর কতিপয় সদস্য। এর সাত দিন পর সাত জনেরই মৃতদেহ শীতলক্ষায় পাওয়া যায়। সরকারের এলিট বাহিনী বলে পরিচিত র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব) এর কয়েকজন সদস্য সরাসরি এই খুনের সঙ্গে জড়িত ছিল বলে তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। তবে তদন্ত শেষ হলেও মামলা নিয়ে ধীরে চলার নীতির নির্দেশ রয়েছে উপরের মহলের। এই আমলে ছয় বছরের শিশু পরাগ মন্ডল অপহৃত হয়, সেই অপহরণের কাহিনী মর্মস্পর্শী ও বেদনাবিধুর।’

রিজভী অভিযোগ করে বলেন, ‘আগামীকালের নির্বাচন নিয়ে অবৈধ শাসকগোষ্ঠী নানা কায়দা-কানুন ও পরিকল্পনা করছে। তারা ময়ুরের সিংহাসন থেকে ছিটকে পড়ার ভয়ে এই কয়েকদিন রক্তাক্ত হামলায় সারাদেশকে আতঙ্কের জনপদে পরিণত করেছে। বিএনপি’র মিছিল ও নেতাকর্মীদের বাড়িতে হামলা-ভাঙচুর চালানোসহ সহিংস আক্রমণে তাদের রক্ত ঝরাচ্ছে। শারীরিকভাবে ধানের শীষের প্রার্থীদের আক্রমণ করাসহ হাজার হাজার নেতাকর্মীকে আক্রমণ করে রক্তাক্ত করা হয়েছে। আগের রাতে ব্যালটে নৌকা মার্কায় সীল মেরে রাখার পরিকল্পনাসহ নানামূখী নীলনকশা বাস্তবায়ন করার চেষ্টা চলছে। গতকাল থেকে নির্বাচনী প্রচারণা বন্ধ থাকলেও আওয়ামী ক্যাডার’রা বিভিন্ন নির্বাচনী আসনে মোটরসাইকেল মহড়া দিচ্ছে। আর চলছে বিরামহীন পুলিশি হয়রারি, মামলা দায়ের ও গ্রেফতার। তবুও ভোটার, ধানের শীষের সমর্থকদের দলের পক্ষ থেকে আহ্বান জানাবো-আগামীকাল আলো আসবেই।’

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে রিজভী বলেন, ‘আপনাদের মাধ্যমে ধানের শীষের নেতাকর্মী, সমর্থক ও সাধারণ ভোটারদের বলতে চাই-সকল প্রতিকুলতাকে উপেক্ষা করে ভোটকেন্দ্রে যেতে হবে। ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন এলাকায় জনগণ অগণতান্ত্রিক শক্তি দুর্বৃত্তদের প্রতিরোধ করা শুরু করেছে। জনগণের শক্তির কাছে দুর্বৃত্তরা পরাজিত হবেই, এটাই ইতিহাসের শিক্ষা।’

সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক আবু আশফাক,সহ-দফতর সম্পাদক মুনির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Check Also

শাহজালাল বিমানবন্দরে অস্ত্র ও গুলিসহ আ.লীগ নেতা গ্রেফতার

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ ঘোষণা ছাড়া অস্ত্র নিয়ে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রবেশ করায় এস এম মুজিবুর ...

সম্পাদকঃ জিয়া্উল হক, নির্বাহী সম্পাদকঃ নওশাদ আহমেদঠিকানাঃ কমিউনিটি হাসপাতাল (৫ম তলা) মুজিব সড়ক, সিরাজগঞ্জ।
ফোনঃ ০১৬৮৩-৫৭৭৯৪৩, ০১৭১৬-০৭৬৪৪৪ ইমেইলঃ sonardesh24.corr@gmail.com, sonardesh24@yahoo.com