Monday, December 10, 2018

ঘরে বসে লাখপতি হোন।

অনলাইন ভিত্তিক অর্থ উপার্জনের ১০০% নিশ্চয়তা দিয়ে ডি.আই.টি-তে বিভিন্ন কোর্স-এ ভর্তি চলিতেছে..!

মোবাইলঃ-01763-023348
sonardesh24.com

ডিম কি আসলে স্বাস্থ্যকর, নাকি ক্ষতি করে-

ডেস্কঃসোনারদেশ২৪ডটকমঃ

sonardesh24.comআমরা যেসব পুষ্টিকর খাবার খেয়ে থাকি তার মধ্যে ডিম অন্যতম। কিন্তু সম্প্রতি একে এড়িয়ে চলতে শুরু করেছেন স্বাস্থ্য সচেতনরা। কারণ ডিম অস্বাস্থ্যকর কোলেস্টরেল আর ফ্যাটে পূর্ণ।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে ডিম কি আসলে উপকারী, নাকি ক্ষতিকর?

ডিম পুষ্টিতে পূর্ণ এক খাবার।  মূলত কিছু ভুল প্রতিবেদন এবং প্রচলিত ভুল ধারণাই ডিম এর তার মাহাত্ম্য হারাচ্ছে। ডিম সম্পর্কে যাবতীয় ভুল ধারণা দূর করতে এগিয়ে এসেছেন ভারতের খ্যাতিমান পুষ্টিবিজ্ঞানী ড. গীতা ধর্মত্তি।

একটি ডিমের কুসুমে রয়েছে ২২১ মিলিগ্রাম কোলেস্টরেল। একজন বয়স্ক মানুষের প্রতিদিন ৩০০ মিলিগ্রাম কোলেস্টরেলের প্রয়োজন। বিশেষজ্ঞরা সপ্তাহে অন্তত ৩টি ডিম খেতে বলেন। আধুনিক প্রজন্মের স্থূলতার জন্য ডিমকে সম্প্রতি দায়ী করা হচ্ছে। আসলে এটা ভুল ধারণা। এ কারণেই ভারতে দেশব্যাপী প্রোটিন অ্যাওয়ারনেস ক্যাম্পেইনের আয়োজন করা হয়েছে। প্রাণিজ ও উদ্ভিজ্জ প্রোটিন সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করে তোলাই এর লক্ষ্য। মানুষের জানা দরকার যে, প্রতি এক কেজি ওজনের জন্য প্রতিদিন ১ গ্রাম প্রোটিন খাওয়া দরকার।

মাঝারি আকারের একটি ডিম দেয় ৬.৬ গ্রাম প্রোটিন। আগেই বলা হয়েছে, একজন প্রাপ্তবয়স্কের দেহের প্রতি কেজি ওজনের জন্য ০.৮-১.০ গ্রাম প্রোটিন প্রয়োজন। ডাল, দুধ ও দুগ্ধজাত খাবারের মাধ্যমে প্রতিদিন ৩৫-৪০ গ্রাম প্রোটিন পাওয়া যায়। স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে প্রোটিন অত্যাবশ্যকীয়। ডিম তাই প্রতিদিন অন্তত একটি ডিম খাওয়া উচিত। তবে ৩-৪টি ডিমের সাদা অংশ খাওয়া যায়।

ডিমের কি কি পুষ্টিগুণ রয়েছে?
উচ্চমানের প্রোটিনের সেরা উৎসগুলোর একটি ডিম। এতে পূর্ণাঙ্গ প্রোটিন রয়েছে। অর্থাৎ, সব প্রয়োজনীয় অ্যামাইনো এসিড রয়েছে ডিমের প্রোটিনে। কুসুমে আছে ভিটামিন এ, ই, ডি ও কে-এর মতো অতি জরুরি ভিটামিন। এসব ভিটামিন সুষ্ঠু বিপাকক্রিয়ার উপাদান। ওজন নিয়ন্ত্রণেও কাজ করে এসব ভিটামিন। এ ছাড়া বি-কমপ্লেক্স, জিঙ্কের মতো সূক্ষ্ম পুষ্টি উপাদান রয়েছে।  

দিন-রাত যেকোনো সময় ডিম খাওয়া যায়। সকালের নাস্তা বা রাতের খাবারের সঙ্গে একটি ডিম বা তিনটি ডিমের সাদা অংশ খেতে পারেন।

খামারে উৎপাদিত ডিমে অ্যান্টিবায়োটিক বা হরমোন প্রয়োগ করা হয় বলে অভিযোগ রয়েছে। এসব রাসায়নিক উপাদান ছাড়া যেকোনো ডিমই পুষ্টিকর।

পুষ্টিকর ও পুষ্টিহীন ডিমের পার্থক্য বুঝবো কিভাবে?
পুষ্টিকর ডিমের কুসুম বেশ পাতলা, গাঢ় রংয়ের এবং সাদা অংশ ঘন থাকে।

সাদা ডিমের চেয়ে কি বাদামি ডিম ভালো?
একেক ধরনের ডিমে একেক পরিমাণ পুষ্টিগুণ বিরাজ করে। মুরগির ভিন্ন ভিন্ন ব্রিডিংয়ের কারণে ডিমের রং পাল্টে যায়। তবে সব ডিমেই একই ধরনের পুষ্টি থাকে।

Check Also

sonardesh24.com

‘গোপন বৈঠকে ইউএনওদের ডেকে ডিসিদের ৪ নির্দেশ’

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিদিন জেলা প্রশাসকরা (ডিসি) মাঠ পর্যায়ে কর্মকর্তাদের নিয়ে বৈঠক ...

সম্পাদকঃ জিয়া্উল হক, নির্বাহী সম্পাদকঃ নওশাদ আহমেদঠিকানাঃ কমিউনিটি হাসপাতাল (৫ম তলা) মুজিব সড়ক, সিরাজগঞ্জ।
ফোনঃ ০১৬৮৩-৫৭৭৯৪৩, ০১৭১৬-০৭৬৪৪৪ ইমেইলঃ sonardesh24.corr@gmail.com, sonardesh24@yahoo.com