Friday, October 19, 2018

ঘরে বসে লাখপতি হোন।

অনলাইন ভিত্তিক অর্থ উপার্জনের ১০০% নিশ্চয়তা দিয়ে ডি.আই.টি-তে বিভিন্ন কোর্স-এ ভর্তি চলিতেছে..!

মোবাইলঃ-01763-023348
sonardesh24.com

‘সাত খুন মামলার রায় কার্যকর নিয়ে যথেষ্ট আশঙ্কা রয়েছে’

সোনারদেশ২৪ রিপোর্টঃ

sonardesh24.comসাত খুন মামলার রায় কার্যকর নিয়ে যথেষ্ট আশঙ্কা রয়েছে  মন্তব্য করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, কয়েকদিন আগে নারায়ণগঞ্জের চাঞ্চল্যকর সাত খুন মামলার রায় ঘোষণা করা হয়েছে। যদিও রায় কার্যকর নিয়ে যথেষ্ট আশঙ্কা রয়েছে, তবুও বিএনপিসহ সারাদেশের মানুষ এ রায়কে স্বাগত জানিয়েছে।

শুক্রবার সকাল ১১ টায় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, এ রায় নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতাদের নানারকম বক্তব্য গণমাধ্যমে আসছে। সাত খুনের পর আওয়ামী লীগ প্রধানসহ তার নেতাকর্মীদের বক্তব্য জনমনে প্রশ্ন তৈরি করেছে।

তিনি বলেন, মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশেই আলোচিত এই সাত খুন মামলাটির তদন্ত শুরু হয়। শুধু তাই নয়, র‌্যাবের আলোচিত ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের গ্রেফতারও করা হয় উচ্চ আদালতের নির্দেশে। তখন সরকার প্রধান থেকে শুরু করে আওয়ামী লীগ নেতারা উচ্চ আদালতের কত সমালোচনাই না করেছিলেন।

রিজভী বলেন,গণমাধ্যমে খবর বেরিয়েছে র‌্যাব-১১ ছিল কসাইখানা। সাত খুন ছাড়াও র‌্যাব ১১ এর অধীনে কমপক্ষে ১১ জন নেতাকর্মীকে গুম করা হয়েছে। তদন্ত চাপা পড়ে আছে। সুষ্ঠু তদন্ত হলে এ সংখ্যা আরও বাড়বে বলেও খবর বেরিয়েছে।

তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জে র‌্যাব-১১ ব্যাটালিয়নের তৎকালীন হেডকোয়ার্টারটি রীতিমতো কসাইখানায় পরিণত হয়েছিল। সরকারের এক প্রভাবশালী নেতার আত্মীয় হওয়ায় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা কাউকে পাত্তা দিতেন না। তার ক্ষমতায় বলীয়ান হয়ে সহযোগীরা সেসময় বেপরোয়া হয়ে ওঠেন। তাদের কাছে মানুষ খুন করা ছিল অনেকটা পাখি শিকারের মতো। তাই আলোচিত এ সাত খুন নয়, এর আগেও তারা কমপক্ষে ১১ ব্যক্তিকে প্রথমে গুম, পরে নৃশংসভাবে প্রায় একই কায়দায় খুন করে লাশ গায়েব করে দেয়। নারায়ণগঞ্জ ছাড়াও মুন্সীগঞ্জ, চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর, নোয়াখালী ও কুমিল্লা জেলা র‌্যাব-১১ এর আওতাধীন ছিল । সে কারণে ওই সময় এসব জেলায় গুম-খুনের যেসব ঘটনা ঘটে, তার সঙ্গে র‌্যাবের সম্পৃক্ততা থাকতে পারে বলেও অনেকে আশঙ্কা করেন।

রিজভী বলেন,নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে মহামান্য রাষ্ট্রপতি সম্প্রতি রাজনৈতিক দলগুলোর সাথে সংলাপ শেষ করেছেন।  তিনি সবার কাছে গ্রহণযোগ্য একটি শক্তিশালী ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠনের লক্ষ্যে নিরপেক্ষ সার্চ কমিটি গঠন করবেন এমন প্রত্যাশা শুধু বিএনপি’র নয়, এদেশের প্রতিটি নাগরিকের। কিন্তু ক্ষমতাসীন দলের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের সাম্প্রতিক বক্তব্যে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠনে সকলের মনে আশার বদলে নিরাশা উঁকি দিচ্ছে। আওয়ামী লীগ প্রধান থেকে শুরু করে তাদের সাধারণ সম্পাদক ও শীর্ষস্থানীয় নেতারা যেভাবে ধমকের সুরে কথাবার্তা বলছেন তাতে রাষ্ট্রপতি ইসি গঠনে শেষ পর্যন্ত নিরপেক্ষ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবেন কী না সে বিষয়ে সন্দেহের উদ্রেক হওয়া অস্বাভাবিক নয়।

তিনি বলেন, বিএনপিসহ দেশবাসী রাষ্ট্রপতির প্রতি আস্থা রাখতে চায়। কিন্তু তিনি যদি আওয়ামী লীগের নেতাদের বক্তব্যে প্রভাবিত হয়ে দলীয় লোকদের দিয়ে সার্চ কমিটির মাধ্যমে ইসি গঠন করেন তাহলে তা জনগণ মানবে না। শুধু তাই নয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণ ও আওয়ামী লীগ নেতাদের কথাবার্তা প্রকৃত গণতন্ত্রের কোনো বার্তা বহন করেনা। বরং সেই বক্তব্যে  ৫ই জানুয়ারির মতো আরেকটি ভোটারশুন্য ভোটকেন্দ্রে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার অঙ্গীকার ফুটে উঠেছে।

রিজভী বলেন, অবৈধ ক্ষমতাকে কেউ ছাড়তে চায় না, কারণ ক্ষমতার মজা একটি অগণতান্ত্রিক গণবিরোধী মনকে আরও বেশি লোভী করে তোলে। বেশিদিন জোর করে ক্ষমতায় টিকে থাকাটা অগণতান্ত্রিক শাসককে আরও বেশি স্বার্থপর, জেদি ও অহঙ্কারী করে তোলে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যে সেটিরই প্রতিফলন ঘটেছে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, রাষ্ট্রপতি বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপের সময় বলেছেন, দেশের শান্তি শৃঙ্খলা এবং গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলোচনা হওয়া উচিত। কিন্তু সঙ্গে সঙ্গে আওয়ামী লীগের নেতারা তা নাকচ করে দিচ্ছেন। এটি রাজনীতির ভবিষ্যতকে অনিশ্চিত, অন্ধকারময় এবং সংঘাতপূর্ণ করে তুলবে। আর এজন্য সকল দায়িত্ব শাসকগোষ্ঠীর।

রিজভী বলেন, আমরা আবারও বলছি দেশের শান্তি, স্থিতিশীলতা ও নাগরিক অধিকারের জন্য গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনার কোনো বিকল্প নেই। তাই অবিলম্বে গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের প্রশ্নে সব দলের সাথে সংলাপ অতীব জরুরি।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন,বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড.রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু,চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব,আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড.সানাউল্লা মিয়া প্রমুখ।

Check Also

sonardesh24.com

মুক্তি পেলেন মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ শাহবাগ থানার নাশকতার মামলায় ৩৮ দিন কারাভোগের পর জামিনে মুক্তি পেয়েছেন বিএনপির সহ-জলবায়ূ ...

সম্পাদকঃ জিয়া্উল হক, নির্বাহী সম্পাদকঃ নওশাদ আহমেদঠিকানাঃ কমিউনিটি হাসপাতাল (৫ম তলা) মুজিব সড়ক, সিরাজগঞ্জ।
ফোনঃ ০১৬৮৩-৫৭৭৯৪৩, ০১৭১৬-০৭৬৪৪৪ ইমেইলঃ sonardesh24.corr@gmail.com, sonardesh24@yahoo.com